বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:০২ পূর্বাহ্ন
Title :
কুড়িগ্রামে বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টির জন্য সালাতুল ইসতিসকার নামাজ ও দোয়া অনুষ্ঠিত>৭১বার্তা বেরোবির একাউন্টিং এন্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস্ বিভাগের বিভাগীয় প্রধান উমর ফারুক> ৭১বার্তা কুড়িগ্রামে আবিষ্কৃত টেলিস্কোপ দেখতে মানুষের ভিড়> ৭১বার্তা লিবিয়াতে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালিত> ৭১বার্তা কুড়িগ্রামে পুকুরে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু> ৭১বার্তা ফুলবাড়ীতে অবহিতকরণ কর্মশালা> ৭১বার্তা চিলমারীর ব্রহ্মপুত্রের তীরে অষ্টমী স্নানে লাখো হিন্দু সম্প্রদায়ের ঢল > ৭১বার্তা বাস-পিকআপে সংঘর্ষে ফরিদপুরে ১১জন নিহত> ৭১বার্তা লিবিয়াতে বৈশাখী উৎসব পালিত > ৭১বার্তা লঞ্চের ধাক্কায় সদরঘাটে পাঁচ জনের মৃত্যু > ৭১বার্তা

ফুলবাড়িতে সপ্তম শ্রেণীর ছাত্র রিকশা চালিয়ে অসুস্থ বাবা মায়ের চিকিৎসা চালায় – ৭১বার্তা

উত্তম কুমার মোহন্ত, ফুলবাড়ি থেকে :
  • আপডেট সময় : রবিবার, ১৫ অক্টোবর, ২০২৩
  • ২১৭ বার পঠিত

 

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়িতে,সপ্তম শ্রেণীতে পড়ুয়া এক ছাত্র রিকশা চালিয়ে অসুস্থ বাবা, মায়ের চিকিৎসার খরচ চালাচ্ছেন। নিয়তির কি নির্মম পরিহাস যে বয়সে পড়ার টেবিল কিংবা খেলার মাঠে থাকার কথা সেই বয়সে রিকশা চালিয়ে অসুস্থ বাবা, মায়ের চিকিৎসার খরচ যোগাতে হচ্ছে শিমুলবাড়ি দাখিল মাদ্রাসার সপ্তম শ্রেণীর ছাত্র আমিনুল ইসলাম কে।

ছোট্ট আমিনুল ইসলামের বাড়ি উপজেলার সদর ইউনিয়নের চন্দ্রখানা মৌজার কুড়ারপার নামক গ্রামে।বাবা দিনমজুর আব্দুল করিম মিয়া (৫৪) এক বছর আগে ষ্টক জনিত কারণে হাত পা অচল হয়ে যায় ভালোভাবে কথাবার্তা বলতে পারেনা। তারপর থেকে কোন কাজ কর্ম করতে পারেনা লাঠির উপর ভর করে কোন মতে ঘর বাহির হতে পারে।মা কবিজন বেগম (৪৫) সেও তিন,চার বছর থেকে গলায় টিউমার সহ শারীরিক নানান রোগে আক্রান্ত। বাবা, মা দুজনেই অসুস্থ পয়সার অভাবে সঠিক চিকিৎসা করতে পারছে না। সহায় সম্বল বলতে শুধু চার শতাংশ জমির উপর জরাজীর্ণ একটি বাড়ি ছাড়া আর কিছুই নেই। অসুস্থ বাবা মায়ের চিকিৎসার খরচ যোগাতে জীবন যুদ্ধে বাধ্য হয়ে রিকশা চালার পথ বেঁচে নেন, আমিনুল ইসলাম।সারাদিন রিকশা চালিয়ে মাত্র তিন,চার শত টাকা আয় করে তাতে কোন মতে ঔষধের টাকা জোগাড় করলেও মাঝে মাঝে সংসার চালানো হিমসিম হয়ে যায়। সব মিলিয়ে কোনমতে দিনাতিপাত করছেন অসহায় এই পরিবারটি।

প্রতিবেশী জহুর আলী,জরিনা বেগম সহ আরো অনেকে বলেন,পরিবারটি খুব অসহায় সংসারে কর্মক্ষম ব্যাক্তি নাই বাবা মায়ের ঔষধের টাকা জোগাড় করতে ছোট্ট আমিনুল এই বয়সে রিকশা চালানোর পথ বেঁচে নেয়। আমাদের এলাকাবাসীর পক্ষে থেকে আবেদন সরকার ও সমাজের দানশীল ব্যক্তিবর্গের নিকট ছোট্ট আমিনুলের মুখের দিকে তাকিয়ে সকলেই সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দিলে অসহায় পরিবারটি খুব উপকৃত হবে।

আমিনুলের মা মোছাঃ কবিজন বেগম বলেন, আমরা দুই স্বামী স্ত্রী অনেক দিন থেকে অসুস্থ সংসারে রোজগার করার মতোন কেউ নাই। আমরা খুব অসহায় আমার বড় ব্যাটা এস, এসসি পরীক্ষা দিয়া ঢাকায় চলি গেইছে সেখানে কাজ করে নিজের পেট চালায় কোন খোঁজ খবর রাখে না। ছোট ব্যাটা আমিনুল সপ্তম শ্রেণীতে পড়ে পড়ার ফাঁকে ফাঁকে রিকশা চালিয়ে দুইজনের ঔষধের টাকা জোগাতে বাচ্চাটার খুব কষ্ট হয়।যদি সরকারি ভাবে কোন সহযোগিতা পাইলং হয় তাহলে দুইজনে চিকিৎসা করি সুস্থ হবার পাইলোং হয়। অবুঝ চাওয়া টার কষ্ট করি রিকশা চলা নাগিল না হয়।

ছোট্ট আমিনুল ইসলাম জানান অনেক দিন
ধরে আমার বাবা,মা দুজনেই অসুস্থ আমাদের অভাবি সংসারে রোজগার করার মতোন কেউ নাই।অভাবের তাড়নায় লেখা পড়ার পাশাপাশি রিকশা চালিয়ে অসুস্থ বাবা মায়ের চিকিৎসাসহ কোন রকম ভাবে সংসার চালাই।রিকশা চালিয়ে বাবা,মায়ের চিকিৎসা সংসারের খরচ পড়ালেখা খুব কষ্টকর।তাই সরকার সহ সমাজের দয়াবান ও দানশীল ব্যক্তিবর্গের নিকট আমার আকুতি কেউ যদি আমাদের সহযোগীতা করতো তাহলে বাবা মায়ের চিকিৎসাসহ আমার পড়াশোনাটা চালিয়ে যেতে পারতাম।

ফুলবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ হারুন জানান, আমি খোঁজ খবর নিয়ে জেনেছি পরিবারটি একদম অসহায় অসুস্থ বাবা, মায়ের চিকিৎসার টাকা জোগাড় করতে সপ্তম শ্রেণীতে পড়ুয়া আমিনুল নামের একটি ছোট্ট ছেলে রিকশা চালাচ্ছে। আমি দ্রুত এই অসহায় পরিবারটিকে সরকারি কোন সুযোগ সুবিধা পাইয়ে দেওয়ার ব্যাপারে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন জানাচ্ছি।

এই বিষয়ে উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা রায়হানুল ইসলামের সাথে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি জানান, অসহায় ওই পরিবারের পক্ষ থেকে লিখিত আবেদন দিলে সমাজসেবা অধিদপ্তর সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে ব্যবস্থা নেবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো কিছু জনপ্রিয় সংবাদ
© All rights reserved © 2023 71barta.com
Design & Development BY Hostitbd.Com