মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ১১:২৩ পূর্বাহ্ন
Title :
বাস-পিকআপে সংঘর্ষে ফরিদপুরে ১১জন নিহত> ৭১বার্তা লিবিয়াতে বৈশাখী উৎসব পালিত > ৭১বার্তা লঞ্চের ধাক্কায় সদরঘাটে পাঁচ জনের মৃত্যু > ৭১বার্তা কুড়িগ্রাম জেলা বাসিকে ঈদুল ফিতরের  শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জেলা প ,প কর্মকর্তা > ৭১বার্তা কুড়িগ্রামে বিদেশি মদসহ কুখ্যাত মাদক কারবারি গ্রেফতার> ৭১বার্তা কুড়িগ্রাম বাসিকে ঈদুল ফিতরের  শুভেচ্ছা> ৭১বার্তা কুড়িগ্রামে দুস্থ অসহায়দের ভিজিএফ এর চাল বিতরণ > ৭১বার্তা ফুলবাড়ীতে কৃষকদের মাঝে আউশ ফসলের বীজ ও সার বিতরণ > ৭১বার্তা কৃষকের মুখে হাসির ঝিলিকঃ সুন্দরগঞ্জে চরাঞ্চলবাসি রবি ফসলেই স্বাবলম্বী> ৭১বার্তা কুড়িগ্রামে বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস পালিত> ৭১বার্তা

উত্তরাঞ্চলে জেঁকে বসেছে শীত, অগ্নিদগ্ধ ৪ জনের মৃত্যু- ৭১বার্তা

মোস্তাফিজার বাবলু
  • আপডেট সময় : বুধবার, ২৪ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ৭২ বার পঠিত

 

বুধবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৮ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে তেঁতুলিয়ায় ।গত এক সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে রংপুর অঞ্চলে চলছে মাঝারি ও তীব্র শৈত্যপ্রবাহ। সঙ্গে রয়েছে কনকনে শীত আর হিমেল হাওয়া।গত দুই সপ্তাহে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৪ জন অগ্নিদগ্ধ রোগীর মৃত্যু হয়েছে।শীতের তীব্রতার সঙ্গে শৈত্যপ্রবাহের প্রভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে উত্তরাঞ্চলের জনজীবন। 

কয়েকদিন ধরে সূর্যের দেখা মিললেও ভোরবেলা উত্তরের আকাশ থাকছে ঘন কুয়াশায় আচ্ছন্ন। আর বিকেল হওয়ার আগেই কোথাও কোথাও শীতের দাপটে সূর্যের দেখা মিলছে না। এমন জবুথবু শীতে বাড়ছে রোগ, সঙ্গে আগুন পোহাতে গিয়ে ঘটছে দগ্ধ হওয়ার ঘটনাও।
এদিকে আরও দু-এক দিন শীতের তীব্রতা চলমান থাকার পূর্বাভাসে শঙ্কিত এ অঞ্চলের শীতার্ত অসহায় ও দরিদ্র মানুষজন। বিশেষ করে খেটে খাওয়া মানুষগুলোর পর্যাপ্ত শীতবস্ত্র না থাকায় দুর্ভোগও বেড়েছে কয়েকগুণ। নদী তীরবর্তী ও ছিন্নমূল মানুষরা রয়েছেন চরম ভোগান্তিতে। যেন তাদের দুর্ভোগের শেষ নেই। ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে শুরু করে প্রতিটি কর্মক্ষেত্রে শীতের প্রভাব পড়েছ।
শীতের সকালে ছিন্নমূল আর গ্রামের অনেক মানুষই খড়কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণের চেষ্টা করছেন। শীতের পাশাপাশি কুয়াশা বেশি হওয়ায় সড়কে হেডলাইট জ্বালিয়ে চলছে গাড়ি। এতে দূরপাল্লার পরিবহন চলছে ধীরগতিতে।
শীতের মধ্যে সন্তানদের বিদ্যালয়ে পাঠানোর সময়সূচি পরিবর্তনের দাবি জানিয়ে রংপুর সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নাছিমা জামান ববি বলেন,‌ সকাল পৌনে নয়টার সময়েও রংপুর ঘন কুয়াশায় আচ্ছাদিত। তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ওপরে থাকলেও ঠান্ডা অনেক। ড্রেস কোড মেনে বিদ্যালয়ে যাওয়া শিশুদের কষ্ট পেতে হচ্ছে। অনেক বিদ্যালয়ে সকাল ৭টায় পাঠদান শুরু হয়। মাধ্যমিক বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে আমার অনুরোধ পাঠদান শুরুর সময়টা পিছিয়ে ১০টা করা হোক।
রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালসহ বিভিন্ন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, শীতের কারণে বেড়েছে ডায়রিয়া, নিউমোনিয়াসহ নানা রোগের প্রকোপ। গত কয়েকদিনের তুলনায় হাসপাতালগুলোতে রোগীর সংখ্যাও বৃদ্ধি পেয়েছে। শীতজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে লম্বা হচ্ছে মৃত্যুর পরিসংখ্যানও। একই সঙ্গে শীত নিবারণ করতে গিয়ে অগ্নিদগ্ধ হওয়ার ঘটনাও ঘটেছে।
হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানিয়েছে, শীতজনিত রোগবালাই বিশেষ করে নিউমোনিয়া, কোল্ড ডায়রিয়া, শ্বাসকষ্ট, জ্বর ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। আক্রান্তদের বেশিরভাগই শিশু ও বয়স্ক মানুষ। শীতজনিত রোগসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত প্রায় সহস্রাধিক শিশু গত ৭-৮ দিনে ভর্তি হয়েছে। শিশুরা কোল্ড ডায়রিয়ায় বেশি আক্রান্ত হচ্ছে। এ ছাড়া শ্বাসকষ্ট, নিউমোনিয়া রোগেও আক্রান্ত হচ্ছে। তবে এতে আতঙ্কের কিছু নেই।
এসব রোগ থেকে শিশুকে রক্ষা করতে গরম কাপড় পরিধান করা জরুরি। মায়েদের খেয়াল রাখতে হবে কোনোভাবেই যেন বাচ্চাদের শীত না লাগে। তবে বেশি অসুস্থ মনে হলে স্বাস্থ্যকেন্দ্র কিংবা হাসপাতালে নেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা।
রংপুর জেলার জনসংখ্যা প্রায় ত্রিশ লক্ষাধিক, এর মধ্যে শীতার্ত মানুষের সংখ্যা পাঁচ লাখেরও বেশি। এর মধ্যে শুধু রংপুর মহানগরীতেই বাস করে প্রায় ৭০ হাজার ভাসমান নারী-পুরুষ। এরা রেলস্টেশনের প্ল্যাটফর্ম, মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ বিভিন্ন অফিস-আদালতের বারান্দা আর ফুটপাতে রাত কাটায়। জেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন সংগঠন থেকে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ করা হলেও তা চাহিদার তুলনায় অপ্রতুল। একইভাবে জেলার আট উপজেলা বিশেষ করে তিস্তা, ঘাট, করতোয়া, যমুনেশ্বরী বিধৌত চরাঞ্চলে বসবাসকারী হাজার হাজার পরিবার শীতে মানবেতর দিন কাটাচ্ছে। তাদের বেশিরভাগ মানুষের কাছে এখনো শীতবস্ত্র পৌঁছায়নি।
এ বিষয়ে রংপুরের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মোবাশ্বের হাসান জানান, যে-সব হতদরিদ্র ও নিম্ন আয়ের মানুষ রয়েছে, তাদের জন্য সরকার শীতবস্ত্র ও গরম কাপড়ের ব্যবস্থা করেছেন। ইতোমধ্যে সরকারি ও বেসরকারিভাবে প্রায় ৬৫ হাজার কম্বল ও গরম কাপড় বিতরণ করেছেন। আরও কম্বল চেয়ে চাহিদা পাঠিয়েছেন মন্ত্রণালয়ে।
রংপুর আবহাওয়া অফিসের দেওয়া তথ্য মতে, আজ বুধবার সকাল ৯টায় রংপুরে ১০ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। মঙ্গলবার তাপমাত্রা আরও কম ছিল। আজ তেঁতুলিয়ায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৮ দশমিক ৪ রেকর্ড করা হয়। এ ছাড়াও দিনাজপুরে ১০ দশমিক ২, ডিমলায় ৯ দশমিক ৫, ও রাজারহাটে ৮ দশমিক ৫, সৈয়দপুরে ৯ দশমিক ২, গাইবান্ধায় ৯ দশমিক ৬, লালমনিরহাটে ৯ দশমিক ২ এবং ঠাকুরগাঁওয়ে ৯ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে।
রংপুর আবহাওয়া অফিসের কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, রংপুর অঞ্চলের মধ্যে আজ পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। রংপুর বিভাগে ৭ থেকে ১২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা উঠানামা করছে। ২৮ জানুয়ারির পর তাপমাত্রা সহনীয় পর্যায়ে থাকার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানান তিনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো কিছু জনপ্রিয় সংবাদ
© All rights reserved © 2023 71barta.com
Design & Development BY Hostitbd.Com